সাইফ পাওয়ার ব্যাটারি জেলা ফুটবল লীগ এনাম-রাছেলে চ্যাম্পিয়ন বেইজিং

0
25

বিশেষ প্রতিনিধি-ভোলার আলো.কম,

এনাম-রাছেলের তান্ডবে চ্যাম্পিয়ন হল বেইজিং স্পোর্টিং কাব। সাইফ পাওয়ার ব্যাটারি ফুটবল লীগের ফাইনালে মর্নিং কাবকে ২-০ গোলে হারালো পৌর ১নং ওয়ার্ডের এই দলটি। খেলার শুরু থেকেই বেইজিংয়ের কাছে পাত্তা পাচ্ছিল না মর্নিং কাব। শুরু থেকেই সুপার ফপ ছিল মর্নিং কাবের অধিনায়ক ১০ নম্বর জার্সিধারি খেলোয়াড় মনির। খেলার ২৫ মিনিটের দিকে এনামের গোলে এগিয়ে যায় বেইজিং। বিরতির পর বদলি খেলোয়াড় হিসেবে মাঠে নেমে চমক দেখান রাছেল। ৫৫ মিনিটের দিকে রাছেলের করা গোলে ২-০ ব্যবধানে পিছিয়ে যায় মর্নিং কাব। এছাড়াও দলের পক্ষে চমৎকার নৈপুন্য প্রদর্শন করেন অধিনায়ক বেনুপাল, রাকিব। খেলায় ফেরার জন্য বার বার ব্যার্থ চেষ্টা চালায় মর্নিং কাব। নয়ন, সুজন, আজিম, ভাই গোপালের আপ্রান চেষ্টাকে ব্যার্থ করে দেয় বেইজিংয়ের ডিফেন্ডার মাসুদ। ৭০ মিনিটে খেলা শেষ হয়। এর আগে অপরাজিত থেকে ফাইনালে উঠে মর্নিং কাব। কিন্তু ফাইনাল ম্যাচে অধিনায়ক ও কাব মালিক মনিরের ভুল সিদ্ধান্তের কারনে অগোছালে দল নিয়ে ২-০তে হেরে যায় দলটি। ম্যাচ সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয় বেইজিংয়ের  স্ট্রাইকার রাছেল।
খেলা শেষে চ্যাম্পিয়ন এবং রানার্সআপ দলের মাঝে পুরস্কার বিতরন করা হয়। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম সিদ্দিকের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবদুল মমিন টুলু। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা পুলিশ সুপার মো: মোকতার হোসেন। এসময় ডিডিএলজি মাহমুদুর রহমান, জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতি হামিদুল হক বাহলুল মোল্লা, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহ-সভাপতি ও ভোলা চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক মো: সফিকুল ইসলাম, সহ-সভাপতি ও ফুটবল লীগের আহ্বায়ক আলহাজ্ব মো: ফয়সেল, সাধারন সম্পাদক ইয়ারুল আলম লিটন, অতিরিক্ত সাধারন সম্পাদক মুনতাসির আলম চৌধুরি রবিন, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক তানভির হায়দার চৌধুরি রাজিব, সাইফ পাওয়ার ব্যাটারি ফুটবল লীগের সদস্য সচিব মোস্তফা কামাল সহ ভোলা জেলা ক্রীড়া সংস্থা ও ভোলা জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের কর্মকর্তা কর্মচারিবৃন্দ।
বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের ব্যবস্থাপনায়, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সহযোগিতায় এবং জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের আয়োজনে গত ২০ জুলাই থেকে এই লীগ শুরু হয়ে  ৫ আগষ্ট (রবিবার) বিকেলে সমাপনি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই লীগের পর্দা নামে। শুর থেকেই লীগের খেলা চলাতে সার্বিক সহোযোগিতা করেন ভোলা জেলা পুলিশ ও বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট ভোলা ইউনিট। দীর্ঘদিন পরে হলেও এই লীগের মাধ্যমে কিছুটা হলেও আনন্দ পেয়েছেন ক্রীড়া প্রেমি ভোলাবাসি। তারা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন লীগের আয়োজনের মাধ্যমে ভোলার ক্রীড়া অঙ্গনকে সচল রাখার জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন।

(হামিদুর রহমান, ৬আগস্ট-২০১৮ই)

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here