ভোলার উত্তর দিঘলদী গরিবের বাড়িতে ইফতার করলেন সাংবাদিক মহল,

0
144

আল-আমিন এম তাওহীদ-ভোলার আলো.কম,

ভোলা সদর উপজেলার উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নের কৃতি সন্তান সৌদি প্রবাসী আবুল কাসেমের বাড়িতে ভোলার সাংবাদিক মহল নিয়ে আয়োজিত ইফতার ও মাহফিলে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (৮জুন) উপজেলার উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নের খুশিয়া গ্রামে প্রবাসী আবুল কাসেমের নিজ বাড়িতে এ ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

আয়োজিত ইফতার মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন, ভোলা প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও অনলাইন সাংবাদিক সংস্থার ভোলা জেলা সভাপতি এবং যমুনা টিভি ও ইত্তেফাক পত্রিকার ভোলা জেলা প্রতিনিধি সাংবাদিক সামস উল-আলম মিঠু, একুশে টিভির ভোলা জেলা প্রতিনিধি মেজবাহ উদ্দিন শিপু, জিটিভির ভোলা প্রতিনিধি হেলাল উদ্দিন গোলদার, মানবজমিন পত্রিকার ভোলা প্রতিনিধি ও ভোলানিউজ.কম পত্রিকার সম্পাদক এ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম, বিজয় টিভির জহিরুল ইসলাম, দৈনিক আমাদের কণ্ঠ পত্রিকার ভোলা প্রতিনিধি ও ভোলার আলো.কম পত্রিকার সম্পাদক আল-আমিন এম তাওহীদ, ঢাকা টাইমস পত্রিকার ভোলা প্রতিনিধি ইকরামুল আলম, তৃতীয়মাত্রার ভোলা প্রতিনিধি ইয়াসিনুল ইমন, ভোলার আলো.কম এর যুগ্ম সম্পাদক ও ভোলারবাণী পত্রিকার রিপোর্টার মাহমুদুল হাসান ফাহাদ, ভোলার আলো.কম এর স্টাফ রিপোর্টার মঞ্জুর রহমান প্রমূখ।

সামস উল-আলম মিঠু ভাইর ফেসবুক থেকে সংগৃহীত— উত্তর দিঘলদী ইউনিয়নের এক সুনসান গ্রামের নাম খুশিয়া গ্রাম।এই গ্রামের ছোট্ট একটি বিলের পাশ ঘেরা চমৎকার এক আধুনিক বাংলোবাড়ী। যে বাড়ীওয়ালা এক সৌদি প্রবাসী সুন্দর মনের মানুষ। আমাদের ভোলার গনমাধ্যম কর্মীদের প্রিয়জন সেই আবুল কাশেম।যার গ্রামের বাড়ীতে আজ ছিলো আমাদের ইফতারের আমন্ত্রণ।

সৌদি আরবে থেকেও আমাদের জন্য আজ আয়োজন করলেন ভালো লাগার মতো এক ইফতার পার্টির। আমাদের সেই প্রিয় এই মানুষটি এলাকার গনমানুষের কাছে অতি আপনজন। তিনি তার এলাকার মানুষের সুখে দুঃখে পাশে থাকার চেষ্টা করেণ।

তার এই বাড়ীটিতে প্রথম বারের মতো এসে মুগ্ধ হয়ে গেলাম আমি।আর আমার সাথে ছিলো ভোলার এক ঝাক জনপ্রিয় তারকা সাংবাদিক বন্ধুরা। বলছিলাম আমাদের আবুল কাশেম ভাইয়ের ইফতার আয়োজন নিয়ে। এ প্রিয় ভাইটি আমার প্রিয় বড় ভাই জেলা আওয়ামীলীগ এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক আরজুর ছোট বোনের আদরের জামাই।

প্রিয় ভাই আবুল কাশেম
প্রবাসে ভালো থেকো দোয়া করি।
আর তোমার বাড়ীর ছাদে উঠে
মনটা সান্ত হয়ে গেল।
কি অপূর্ব প্রাকৃতিক সৌন্ধর্য!!
মুগ্ধ হয়ে গেলাম আমরা।

বিলের ওই পাড়ের গাছগুলো
আকাশের সঙ্গে মিলে গিয়ে
তৈরী হয়েছে মনোমুগ্ধকর
এক শিল্পীর আঁকা ছবি।

রমজানের এই ক্লান্ত শরীরটা
পড়ন্ত বিকেল আর গোধূলী আবির মাখা
সন্ধ্যর দৃশ্যপটে আমরা সকলে চাঙ্গা হয়ে উঠলাম।
আর তখন কত রকমের ছবি তোলা আর সেলফি।

(হামিদুর রমান, ০৮জুন-২০১৮ইং)

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here