বেগম জিয়াকে সবাই ভুলেই যাচ্ছে ?

0
41

অনলাইন ডেস্ক: ভোলার আলো.কম,

প্রথম রোজায় তাঁর সঙ্গে দেখা করেছিলেন ভাইবোনরা। আজ ২০ রোজা, এর মধ্যে বেগম জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেনি কেউ। না আত্মীয় স্বজন, না দলের লোকজন, এমনকি আইনজীবীরাও নয়। কারা সূত্রে প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে, ডিভিশন প্রাপ্ত একজন দণ্ডিত কয়েদী মাসে দুবার সাক্ষাৎ পান। সেই হিসেবে, আজ থেকে যেকোনো দিন বেগম জিয়ার সঙ্গে তাঁর পরিবারের লোকজন সাক্ষাৎ করতে পারেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত বেগম জিয়ার পরিবারের কেউ তাঁর সঙ্গে সাক্ষাৎ করার আগ্রহ দেখাননি। বিএনপির নেতৃবৃন্দও বেগম জিয়ার সাথে সর্বশেষ দেখা করেছিলেন দেড় মাস আগে। আর তাঁর আইনজীবীরা সাক্ষাৎ করেছিলেন রোজা শুরু হবার আগে। গত দু সপ্তাহের বেশি সময় কারাগারে একাকী সময় কাটাচ্ছেন বিএনপির চেয়ারপারসন। তাঁকে নিয়ে বিএনপি নেতাদের বক্তৃতা বিবৃতিতেও এখন ভাটার টান। নেতারা যেটুকু না বললেই নয়, সেটুকুই বলছেন। বেগম জিয়ার মুক্তির আশা ছেড়ে দিয়েছেন নেতা-কর্মীরা। সবাই এখন যার যার মতো ব্যস্ত। যদিও বিএনপির নেতৃবৃন্দ বলছেন, রাজপথের আন্দোলনের মাধ্যমেই বেগম জিয়াকে মুক্ত করে আনা হবে। কিন্তু আন্দোলনের কোনো আলামত এখন পর্যন্ত দেখা যায়নি।

বেগম জিয়ার আইনজীবীরা জামিনের জন্য কিছুদিন খুব দৌঁড়ঝাপ করলেন। বেগম জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাতও করলেন। আইনজীবীরাও এখন বুঝে গেছেন আপাতত বেগম জিয়ার মুক্তির কোনো সম্ভাবনা নেই। বেগম জিয়ার আইনজীবী অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া বলেছেন, ‘বেগম জিয়াকে মামলার জালে জড়িয়ে ফলা হয়েছে। আইনি পথে সহসা মুক্তির কোনো সম্ভাবনা দেখছি না।’

বাংলাদেশের সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ আগামী ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে হাইকোর্টে জিয়া এতিমখানা দুর্নীতি মামলা শেষ করার নির্দেশ দিয়েছে। অ্যাটর্নি জেনারেল অফিস বলেছে, ঈদের পরপরই এই মামলার শুনানির জন্য তাঁরা হাইকোর্ট যাবেন। হাইকোর্টে এই মামলা ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে চূড়ান্ত নিষ্পত্তি হলে এবং তাতে বেগম জিয়ার দণ্ড বহাল থাকলে তাঁর আর মুক্তির কোনো সম্ভাবনাই থাকল না।

বেগম জিয়ার ভাই-বোনরাও ক্রমশ বেগম জিয়ার দৃশ্যপট থেকে হারিয়ে যাচ্ছে। প্রথমদিকে তাঁরা যেভাবে জেলে বেগম জিয়ার জন্য শুকনো খাবার পাঠাতেন, ইদানীং সেটিও কমে গেছে। বেগম জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে কিছুদিন তোলপাড় চলল, এখন সবাই চুপচাপ। তাঁর কারাবরণ নিয়ে এক ধরনের জাতীয় ঐক্যমত প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা বলছেন, এভাবে চলছে, একদিন হয়তো সবাই ভুলেই যাবে খালেদা জিয়াকে। তিন মাসেই তো বেগম জিয়াকে ভুলতে বসেছে দেশের মানুষ।

(হামিদুর রহমান, ৭জুন-২০১৮ইং)

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here